Home অর্থনীতি এনআরবিসিকে ব্র্যান্ড হিসেবে পরিচিত করাতে চাই

এনআরবিসিকে ব্র্যান্ড হিসেবে পরিচিত করাতে চাই

 

খন্দকার রাশেদ মাকসুদ। দায়িত্ব পালন করছেন এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পদে। এর আগে কাজ করেছেন বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়ায় সিটিব্যাংক এনএর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিটি কান্ট্রি অফিসার হিসেবেও। অভিজ্ঞ এ ব্যাংকার সম্প্রতি কথা বলেছেন বণিক বার্তার সঙ্গে। সাক্ষাত্কার নিয়েছেন হাছান আদনান

একসময় বিদেশী ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহী ছিলেন। এখন দেশীব্যাংকের এমডি পদে আছেন। দুটি ধারার ব্যাংকের মধ্যে ভিন্নতাকেমন দেখছেন?

দুই ধারার ব্যাংকের মধ্যে মৌলিক তফাত কমপ্লায়েন্স পরিপালনে। আমেরিকান এক্সপ্রেস ব্যাংকে যোগদানের মাধ্যমে আমার ব্যাংকিং ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল। এরপর বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়ায় সিটিব্যাংক এনএর ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতাও হয়েছে। এসব দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে দেখেছি, বহুজাতিক ব্যাংকগুলো যেকোনো ছোটখাটো ত্রুটিকেও বড় করে দেখে। অভ্যন্তরীণ সুশাসন নিশ্চিত করা ও ব্যাংকিং রীতিনীতি পরিপালনে তারা খুবই সতর্ক। আমাদের দেশের ব্যাংকগুলো এক্ষেত্রে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। তবে ইদানীং বেসরকারি খাতের ব্যাংকে কমপ্লায়েন্সের সংস্কৃতি বেড়ে উঠেছে। ধীরে ধীরে পরিস্থিতির পরিবর্তন হচ্ছে। ব্যাংকগুলোকে দীর্ঘমেয়াদে টিকে থাকতে হলে রীতিনীতি মেনে চলায় অভ্যস্ত হয়ে উঠতে হবে। অন্যথায় গ্রাহক আস্থা হারিয়ে বিলীন হতে বাধ্য।

বিদেশী ব্যাংকে দীর্ঘদিনের কাজের অভিজ্ঞতা দেশী ব্যাংকে কতটুকু লাগাতে পারছেন?

২০১৮ সালের এপ্রিলে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে আমি যোগদান করি। সে হিসেবে এক বছরের বেশি সময় চতুর্থ প্রজন্মের একটি ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহী হিসেবে কেটেছে। এ ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহী হিসেবে সময়টি হয়তো অল্প, কিন্তু অর্জন অনেক। একেবারে নবীন একটি ব্যাংকে কাজ করতে এসে আমি নতুন করে অনেক কিছু শিখতে পেরেছি। একটি বেসরকারি ব্যাংকে কাজের পরিধি অনেক বড়। এখানে এসে সব ধরনের গ্রাহক ও কাজের সঙ্গে পরিচিত হতে পেরেছি। এ সময়ে সাধারণ মানুষের কাছাকাছি যাওয়ার সুযোগও বেশি হয়েছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল ঘুরে মানুষের সুখ-দুঃখের গল্পের অংশীদার হতে পেরেছি। দীর্ঘদিন বিদেশী ব্যাংকে কাজ করার অভিজ্ঞতার সঙ্গে দেশী ব্যাংকের কার্যক্রমের সমন্বয় করতে পেরে আমি আনন্দিত। এনআরবিসি ব্যাংকের বর্তমান পরিচালনা পর্ষদে রয়েছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সফল এনআরবি (নন-রেসিডেন্ট বাংলাদেশী) ব্যবসায়ীরা। তাদের অভিজ্ঞতার আলোকে এনআরবিসি ব্যাংক পাচ্ছে বিভিন্ন দেশের বেস্ট প্র্যাকটিস-সমৃদ্ধ দিকনির্দেশনা। একই সঙ্গে আমূল পরিবর্তন এসেছে ব্যবস্থাপনার কালচারে। দুই পক্ষের প্রচেষ্টায় এনআরবিসি একটি কমপ্লায়েন্ট ব্যাংক হিসেবে দাঁড়াতে পেরেছে।

এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের ঋণ কতটুকু সুরক্ষিত আছেবিতর্কিত ঋণগুলোর বর্তমান অবস্থা কী?

গ্রাহকদের আমানতের সুরক্ষা দিতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এজন্য যেকোনো ঋণ প্রস্তাবের যথাযথ মূল্যায়ন করে তবেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হচ্ছে। সেসব গ্রাহককেই আমরা ঋণ দিচ্ছি, যারা প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে সচেষ্ট। পর্ষদ বা অন্য কোনো পক্ষের তদবির কিংবা চাপে পড়ে আমরা ঋণ বিতরণ করছি না। ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষই গ্রাহকের যোগ্যতার ভিত্তিতেই সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। তবে ঋণের নতুন শ্রেণীকরণের আগাম আশায় কিছু গ্রাহক নিয়মিত ঋণ পরিশোধ করেনি।

এর আগে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের কিছু ঋণ নিয়ে বিতর্ক উঠেছিল। সে ঋণের সব টাকা এরই মধ্যে সমন্বয় হয়েছে। এ মুহূর্তে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের একটি ঋণ নিয়েও কেউ আপত্তি তুলতে পারবে না। ব্যাংকের অভ্যন্তরে সুশাসনের উন্নতি হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংক সম্প্রতি তাদের নিয়োগকৃত পর্যবেক্ষক প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

অন্য দুটি এনআরবি ব্যাংক থেকে এনআরবি কমার্শিয়ালের ভিন্নতা কোথায়?

সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও দক্ষ জনবল দিয়ে এনআরবি কমার্শিয়ালকে সাজানো হয়েছে। যুগোপযোগী ও ব্যতিক্রমী বেশকিছু ঋণ ও আমানত প্রডাক্ট অন্যদের চেয়ে স্বাতন্ত্র্য এনে দিয়েছে আমাদের। ব্যক্তিগত, গৃহঋণ, গাড়িঋণ, ক্রেডিট কার্ডসহ রিটেইল ঋণের আবেদন পাওয়ার পর দ্রুততম সময়ের মধ্যে গ্রাহকের হাতে টাকা তুলে দেয়ার জন্য আমাদের কর্মীরা তত্পর। ব্যাংকের ব্যালান্স শিটকে শক্তিশালী করার জন্য এসএমই, রিটেইল ও বাণিজ্যিক ঋণকে সমান গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। সম্প্রতি ‘এনআরবিসি প্লানেট’ মোবাইল অ্যাপ চালুর মাধ্যমে ব্যাংকের বেশির ভাগ সেবাই আমরা গ্রাহকদের হাতের মুঠোয় তুলে দিয়েছি। প্রবাসীদের জন্যও আমরা বেশকিছু উদ্যোগ নিয়েছি ও নিচ্ছি।

এনআরবি ব্যাংকের পরিসর কতটুকু সম্প্রসারিত হয়েছে?

চতুর্থ প্রজন্মের ব্যাংক হিসেবে এনআরবিসি ২০১৩ সালের এপ্রিলে কার্যক্রম শুরু করে। এখন পর্যন্ত আমরা সারা দেশে ৬৮টি শাখা চালু করেছি। গ্রাহকদের সেবা সহজলভ্য করার উদ্দেশ্যে ছয়টি বিশেষায়িত ব্যাংকিং বুথ ও ২২টি বিআরটিএর কালেকশন বুথ খোলা হয়েছে। এছাড়া এ বছর আরো সাতটি শাখা ও ১৫টি বিশেষায়িত বুথ খোলার পরিকল্পনা রয়েছে, যা আমাদের নেটওয়ার্ক বৃদ্ধি করে ১০০ লোকেশনে নিয়ে যাবে। এগুলোর মাধ্যমে বিআরটিএর বিভিন্ন সেবার ফি ছাড়াও সরকারের অন্যান্য রাজস্ব সংগ্রহ করা হচ্ছে। এরই মধ্যে আমরা ৫২টি এটিএম বুথ চালু করেছি। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ব্যাংকিং সেবা পৌঁছে দিতে আমরা এজেন্ট ব্যাংকিং চালু করেছি। এরই মধ্যে ৫৬৩টি এজেন্ট পয়েন্ট চালু করা হয়েছে। আগামীতে এ সংখ্যা হাজারে উন্নীত হবে। এছাড়া আমাদের ব্যাংক সরকারের বিভিন্ন ধরনের নিরাপত্তাবলয়ের আওতায় সমাজের সবচেয়ে অবহেলিত জনগোষ্ঠীর কাছে বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা ও প্রতিবন্ধী ভাতা ইত্যাদি পৌঁছে দেয়। কাজেই এনআরবিসি ব্যাংক সরকারের উন্নয়নের একজন গর্বিত অংশীদার। গ্রাহকদের ক্রমাগত আস্থার ফলে চলতি বছরের জুন পর্যন্ত এনআরবিসিতে গ্রাহকদের ৬ হাজার ৩৬৯ কোটি টাকার আমানত জমা হয়েছে।

তিনটি ব্যাংকের নামের শুরুতে এনআরবি থাকায় কোনো সমস্যা হচ্ছে কি?

তিনটি ব্যাংকের নামের শুরুতে এনআরবি সংযুক্ত থাকায় বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। গ্রাহক ও ব্যাংকার দুই শ্রেণীর অবস্থা একই। অনেক সময় অন্য ব্যাংকের চেক নিয়ে গ্রাহক আমাদের শাখায় চলে আসছেন। আবার আমাদের গ্রাহকও অন্য ব্যাংকে চলে যান। এতে ব্যাংক কর্মকর্তাদের বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে। এ পরিস্থিতি এড়াতে আমরা সারা দেশে আমাদের কার্যক্রম পরিচিত করছি ‘এনআরবিসি’ ট্যাগ লাইনের মাধ্যমে। এখন ‘এনআরবিসি’ বর্ণগুচ্ছকেই ব্র্যান্ড হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করছি। এরই মধ্যে আমরা অনেকখানি সফল।

ব্যাংকিং খাতের বিদ্যমান সংকট কাটাতে কী ধরনের উদ্যোগ দরকার বলে মনে করেন?

আস্থা ও বিশ্বাসের কারণেই গ্রাহক ব্যাংকে টাকা রাখেন। পৃথিবীর অনেক স্বনামধন্য ব্যাংকই আস্থার সংকটে পড়ে অস্তিত্ব হারিয়েছে। এ ধরনের উদাহরণ আমাদের দেশেও আছে। কোনোভাবেই যাতে ব্যাংকিং খাতে আস্থার ঘাটতি তৈরি না হয়, সেটি নিশ্চিত করতে হবে। এক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রক সংস্থা হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংককে শক্ত ও কঠোর হতে হবে। সুশাসন ছাড়া ব্যাংক টিকবে না। এজন্য ব্যাংক পরিচালনায় সুশাসন ও কমপ্লায়েন্স ইস্যুতে কোনো ছাড় দেয়া যাবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Must Read

৭০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে নতুন করোনাভাইরাস

দ্যা নিউজ বিডি,আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাজ্য থেকে ছড়ানো নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনাভাইরাস এরইমধ্যে বিশ্বের ৭০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। গতকাল বুধবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) এ তথ্য...

ভারতে পাচারকালে ২২ বাংলাদেশি উদ্ধার, দালাল ধরা

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: ভারতে পাচারকালে সাতক্ষীরার কুলিয়াডাঙ্গা সীমান্ত থেকে বাংলাদেশি ২২জনকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।এদের মধ্যে ১০ নারী, ১০ পুরুষ ও ২জন শিশু রয়েছে। এ সময় নাসিমা...

হাতিরঝিল থেকে আরও ৫২ কিশোর আটক

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: রাজধানীর হাতিরঝিলে বেড়াতে আসা নাগরিকদের হয়রানি ও উত্যক্তের অভিযোগে ৫২ কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ।বুধবার হাতিরঝিলের আশেপাশের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এর আগে...

খুলনায় ১০০ কোটি টাকার দুর্লভ সাপের বিষসহ আটক ৩

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: খুলনায় প্রায় শত কোটি টাকা মূল্যের দুর্লভ সাপের বিষসহ তিন পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬।বৃহস্পতিবার ভোরে মহানগরীর জিরোপয়েন্ট এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।গ্রেফতারকৃতরা...

ক্যামেরুনে বাস ও তেলবাহী ট্যাংকারের সংঘর্ষে নিহত ৫৩

দ্যা নিউজ বিডি,আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ক্যামেরুনের পশ্চিমাঞ্চলে বুধবার গভীর রাতে যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে একটি জ্বালানি তেলবাহী ট্যাংকারের ভয়াবহ সংঘর্ষে দুটি যানেই আগুন ধরে যায়।এ ঘটনায় ৫৩...