Home কৃষি ও প্রকৃতি মশা খেয়ে ডেঙ্গু কমাবে ৮ হাজার ‘মশাভুক মাছ’

মশা খেয়ে ডেঙ্গু কমাবে ৮ হাজার ‘মশাভুক মাছ’

 

দেশের বর্তমান ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবেলায় এডিস মশার বাচ্চা বা লার্ভা ধ্বংস করতে ড্রেনে প্রায় আট হাজার মশাভুক মাছ (মসকুইটো ফিশ) অবমুক্ত করা হয়েছে।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) মাৎস্য বিজ্ঞান অনুষদের আয়োজনে মঙ্গলবার ওই কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়।

এর পর পুরো ক্যাম্পাসের ড্রেনেই ওই ফিশ অবমুক্ত করা হবে। ওই মাছগুলো ছাড়বেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. লুৎফুল হাসান।

এ ছাড়া আগামী বৃহস্পতিবার ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটুর নেতৃত্বে শহরের ড্রেনে ওই মাছ ছাড়া হবে।

মশাভুক মাছ (Mosquito Fish) ছাড়ার মাধ্যমে মশার ডিম নিধন সম্ভব বলে জানিয়েছেন বাকৃবির একদল গবেষক।

গবেষক দলের প্রধান ফিশারিজ ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক ড. হারুনুর রশীদ জানান, মসকুইটো ফিশ প্রায় ১০ বছর আগে আমেরিকা থেকে দেশে অ্যাকুরিয়াম ফিশ হিসেবে আসে।

পরে এটি দেশের মুক্ত জলাশয় এবং ড্রেনে ছড়িয়ে পড়ে। কয়েক বছর আগে ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ড্রেনে মশা দমনে মসকুইটো ফিশ ও গাপ্পি মাছ ছাড়ে। গবেষণার একপর্যায়ে চট্টগ্রামের বিভিন্ন ড্রেন ও নর্দমার প্রচণ্ড নোংরা পানিতে আমরা ‘মশাভুক মাছ’-এর সন্ধান পেয়েছি; যারা মশার ডিম প্রচুর পরিমাণে খাবার হিসেবে গ্রহণ করে।

এ মাছ ড্রেন ও নর্দমার প্রচণ্ড নোংরা পানিতে স্বাভাবিকভাবেই বেঁচে থাকতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে, মশার লার্ভা ভক্ষণে দেশীয় খলিশা, দারকিনা, জেব্রা ফিশ মসকুইটো ফিশের চেয়ে বেশি উপযোগী হলেও এরা নর্দমার নোংরা পানিতে বেশিদিন বাঁচতে পারে না। তাই নর্দমার পানিতে মশার লার্ভা নিধনে মসকুইটো ফিশ সবচেয়ে বেশি উপযোগী।

এ সময় ভিসি অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান বলেন, ডেঙ্গুর এ মারাত্মক পরিস্থিতিতে এডিস মশার বংশ বিস্তার রোধে মশা নিধনের নতুন নতুন প্রযুক্তিকে ব্যবহার করা শিখতে হবে। তেমনি একটি হলো মশা নিধনের বায়োলজিক্যাল পদ্ধতি অর্থাৎ মাছ দিয়ে মশার লার্ভাকে ভক্ষণ করানো।

এ ক্ষেত্রে দেশীয় প্রজাতির খলিশা মাছ বেশি উপযোগী। ঝোঁপঝাড় পরিষ্কার রাখা, টবে পানি জমতে না দেয়া, ধূমায়িত করা এবং জৈবিক পদ্ধতি সব কিছুর সমন্বিত পদ্ধতির মাধ্যমে এ দুর্যোগ মোকাবেলা সম্ভব।

মশা নিধন কর্মসূচিতে মাৎস্য বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. গিয়াসউদ্দিন আহম্মেদের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোভিসি অধ্যাপক ড. মে. জসিমউদ্দিন খান, প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. আজহারুল হকসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Must Read

ভয়াবহ বৈশ্বিক খাদ্যসংকটের আশঙ্কা জাতিসংঘের

দ্যা নিউজ বিডি,আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের কারণে সামনের মাসগুলোতে বৈশ্বিক খাদ্য সংকট তৈরি হতে পারে বলে সতর্ক করেছে জাতিসংঘ। খবর বিবিসির। নিউইয়র্কে বুধবার...

নাটোরে ৬ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: নাটোরের বড়াইগ্রামে মজুত করে বোতলজাত সয়াবিন খোলা সয়াবিন হিসেবে বিক্রয় করায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর বাজারের বিভিন্ন দোকানে অভিযান...

লিবিয়ার ভূমধ্যসাগর উপকূলে ৫০০ বাংলাদেশি আটক

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: ভূমধ্যসাগরের উপকূল থেকে পাঁচ শতাধিক বাংলাদেশিকে আটক করেছে লিবিয়ার পুলিশ। ত্রিপোলির পূর্ব উপকূল থেকে ইউরোপে পাড়ি দেয়ার প্রস্তুতিকালে গত শনিবার...

পাকিস্তানকে সাবধান করলো তালেবান

দ্যা নিউজ বিডি,আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানের অভ্যন্তরে পাকিস্তানের আর কোনো হামলা বরদাস্ত করা হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে তালেবান। এক বিবৃতিতে রোববার আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোল্লা...

দেশে সড়ক দুর্ঘটনা-যানজটে বছরে ক্ষতি ১ লাখ ৭৫ হাজার কোটি টাকা

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: সড়ক দুর্ঘটনা ও ঢাকার যানজটের কারণে প্রতি বছর ১ লাখ ৭৫ হাজার কোটি টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়। এই ক্ষতির...