Home অর্থনীতি মশা নিধনের জন্য বরাদ্দ বাজেটের টাকা নয়-ছয়

মশা নিধনের জন্য বরাদ্দ বাজেটের টাকা নয়-ছয়

 

মশার ওষুধ কম ছিটিয়ে সেই টাকায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) কিছু কর্মকর্তারা বিদেশে প্রমোদ ভ্রমণ করেন বলে অভিযোগ উঠেছে।এমন অভিযোগের তদন্তে মাঠে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কর্মকর্তারা।

সম্প্রতি রাজধানীতে ডেঙ্গু জীবাণুবাহিত মশার দৌড়াত্ব বৃদ্ধি পেলে তা নিয়ন্ত্রণে নিয়মিত মশা মারার ওষুধ না ছিটানোসহ মশা নিধন কার্যক্রম মনিটরিং না করার অভিযোগের অনুসন্ধানে নামে দুদক।এ অনুসন্ধান চলাকালীন ডিএসসিসি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ওই অভিযোগটি আসে বলে জানিয়েছেন দুদকের সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরী।

তিনি জানান, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) বিভিন্ন ওয়ার্ডে ডেঙ্গুবাহী এডিস ও কিউলেক্স মশা মারার ওষুধের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে প্রতি বছর কয়েক কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। ওষুধের বাজেটের এ টাকায় ডিএসসিসির বেশকিছু কর্মকর্তা গত চার বছর বিদেশে গিয়েছেন বলে আমরা অভিযোগ পেয়েছি।

তিনি আরও বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত করা হবে। তারা কেন বিদেশে গিয়েছেন, কতো টাকা খরচ হয়েছে, সেই দেশে গিয়ে মশক নিধনের কী উপকার হয়েছে এসব প্রশ্নের জবাব তা খুঁজবে দুদক।এদিকে মশার ওষুধ কেনা হয়েছে ও সঠিকভাবে ব্যবহার করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন ডিএসসিসির ভান্ডার ও ক্রয় কর্মকর্তা (পরিদর্শন ও মান নিয়ন্ত্রণ) মো. লিয়াকত হোসেন।মশার ওষুধের টাকায় বিদেশ ভ্রমণ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বিদেশে প্রশিক্ষণে যাদের পাঠানো হয়েছে তারা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মাধ্যমে নির্বাচিত হয়ে গেছেন। কোন টাকা এখানে ব্যবহৃত হয়েছে যে বিষয়ে কিছুই জানি না।’

সূত্র জানায়, এখনও ডিএসসিসির মশা নিবারণী দফতরের একজন উপসচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তা বিদেশ ভ্রমণে রয়েছেন।সারা দেশে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মানুষ মারা যাবার সময়ে ওই কর্মকর্তার বিদেশ ভ্রমণ বিষয়টি অভিযোগের সত্যতাকে আরও দৃঢ় করছে।

তাই মশা নিধনের জন্য বরাদ্দ বাজেটের টাকা নয়-ছয় হয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখতে ইতিমধ্যে মাঠে নেমেছে দুদকের একটি তদন্ত দল।দুদকের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সূত্রে জানা গেছে, ডিএসসিসির কাছে গত চার বছরের বাজেট ও ব্যয় বরাদ্দের হিসাব চেয়েছে তদন্ত দলটি।মঙ্গলবার মশক নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন না করার অভিযোগে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এবং মশক নিবারণ দফতরে (লালবাগ, ঢাকেশ্বরী মন্দির এলাকায়) দুটি পৃথক অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক।

অভিযান চলাকালে মশক নিবারণ দফতরে প্রধান কর্মকর্তাকে পাননি দুদক কর্মকর্তারা।এছাড়াও দফতরে মজুদ মশা নিয়ন্ত্রণে ব্যবহৃত ওষুধের ড্রাম খালি অবস্থায় পাওয়া যায় বলে জানায় দুদকের সংশ্লিষ্ট সূত্র।অভিযানে নামা দুদক কর্মকর্তারা জানতে পারেন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের কাছ থেকে মশার ওষুধ ধার নিয়ে ব্যবহার করছে দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন।

সূত্র আরও জানায়, গত চার বছরে কী পরিমাণ মশার ওষুধ ক্রয় করা হয়েছে এবং সেগুলো কী হারে ব্যবহার করা হয়েছে তা আজ (৭ আগস্ট) জানাতে দুদকের অভিযান পরিচালনাকারী দল ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনকে অনুরোধ জানিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Must Read

সেরা ১০টি সুন্দর রিসোর্ট ঢাকার কাছে

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: ব্যস্ততার ভিড়ে একটু ছুটি মিললেই কোথায় ঘুরতে যাবেন তা নিয়ে পরিকল্পনার শেষ নেই। যানজট এড়িয়ে কম দূরত্বে যদি কোথাও...

খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়লো

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়ানো হয়েছে। তবে এসময় তিনি চিকিৎসার...

মামলা করতে আদালতে জেমস

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: বাংলালিংকের বিরুদ্ধে গান কপিরাইট আইনে ঢাকার নিম্ন আদালতে মামলা করেছেন মাহফুজ আনাম জেমস।রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ...

আফগানিস্তানে ভয়াবহ বোমা হামলা, নিহত ৭

দ্যা নিউজ বিডি,আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল ও পূর্বাঞ্চলীয় শহর জালালাবাদে পরপর কয়েকটি বিস্ফোরণে অন্তত সাত জন নিহত এবং নারী শিশুসহ অন্তত ৩০ জন...

ঘুষ গ্রহণের মামলায় ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল কারাগারে

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: ঘুষ গ্রহণ ও অর্থপাচার আইনে করা মামলায় বরখাস্ত সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি প্রিজনস) পার্থ গোপালের জামিন নামঞ্জুর করে...