Home আইন-আদালত স্বামীসহ ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড টুম্পা হত্যা মামলায়

স্বামীসহ ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড টুম্পা হত্যা মামলায়

দ্যা নিউজ বিডি, নিজস্ব প্রতিবেদক: খুলনার ডুমুরিয়ার বাদুড়গাছা গ্রামে গৃহবধু টুম্পা মন্ডল (২৫) হত্যা মামলায় স্বামী প্রসেনজিৎসহ ৩ জনকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। সোমবার (১২ অক্টোবর) খুলনা জেলা ও দায়রা জজ মশিউর রহমান চৌধুরী এ রায় ঘোষণা করেন। রায়ে ৩০২ ধারায় প্রসেনজিৎ গাইন, অনিমেষ গাইন ও বিপ্লব কান্তি মন্ডলকে মৃত্যুদণ্ড, ২৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং লাশ গুম করার অপরাধে তাদের প্রত্যেককে ৭ বছর কারাদণ্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করা হয়। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় অপর আসামি সুদাশ গাইনকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

হত্যা মামলার আসামি হচ্ছে, গৃহবধূর স্বামী সেনপাড়া গ্রামের পরিমল গাইনের পুত্র প্রসেনজিৎ গাইন (২৭), তার ভাই সুদাশ গাইন (২৯), একই গ্রামের অনাদি গাইনের পুত্র অনিমেষ গাইন (২৫) এবং কৈপুকুরিয়া এলাকার বিনয় মন্ডলের পুত্র বিপ্লব কান্তি মন্ডল (৩২)। এদের মধ্যে বিপ্লব গাইন ও প্রসেনজিৎ গাইন এখনও পলাতক রয়েছে। আদালতের পিপি এড. এনামুল হক নথির বরাত দিয়ে জানান, ২০১৫ সালের ৬ জুলাই প্রসেনজিৎ ডুমুরিয়ার চন্ডিপুর গ্রামের সুরঞ্জন মন্ডলের মেয়ে টুম্পা মন্ডলকে বিয়ে করে। এরপর প্রসেনজিৎ স্ত্রী টুম্পাকে নিজ বাড়িতে নিয়ে গেলে পরিবারের লোকজন তাকে মেনে নেয়নি। তারপরও প্রসেনজিৎ তাকে নিয়ে নিজ বাড়িতেই অবস্থান করতে থাকে। কিছুদিন পর থেকে প্রসনজিৎ স্ত্রী টুম্পার কাছে যৌতুক দাবি করে। কিন্তু সে অস্বীকৃতি জানানোর পর থেকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন শুরু করা হয়। এ ঘটনায় টুম্পা বাদী হয়ে স্বামী প্রসেনজিৎ গাইন, শ্বশুর পরিমল গাইন ও শাশুড়ি কবিতা গাইনের বিরুদ্ধে যৌতুক মামলা করেন। এদিকে, মামলা তুলে নিতে বললে টুম্পা স্বামী প্রসেনজিৎকে জানায় পুত্রবধু হিসেবে মেনে নিলে ও যৌতুকের টাকা দাবি না করলে সে মামলা তুলে নিবে। এরপর থেকে টুম্পার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করতো প্রসেনজিৎ।

পরবর্তীতে ২০১৬ সালের ৭ অক্টোবর স্বামী টুম্পাকে নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে পূজা দেখানোর কথা বলে কৌশলে নিয়ে বের হয়। উপজেলার ৭নং শোভনা ইউনিয়নের বাদুড়গাছা মাঠ মন্দিরের পূর্বপাশে ঘ্যাংরাইল নদীর পাড়ে বসে দুই জনের মধ্যে মামলা উঠানো নিয়ে তর্ক বিতর্ক হয়। এরপর প্রসেনজিতসহ আসামীরা টুম্পাকে পানিতে চুবিয়ে শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে পানির নিচে ডুবিয়ে দেয়। ৯ অক্টোবর বিকেল সাড়ে ৫ টায় ঘ্যাংরাইল নদীর পশ্চিম কিনারা থেকে পানিতে উপুড় হয়ে ভাসমান অবস্থায় পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় টুম্পার ভাই সমিত মন্ডল ডুমুরিয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। ২০১৭ সালের ২৫ নভেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই কেরামত আলী ৪ জনকে অভিযুক্ত করে ডুমুরিয়া থানায় চার্জশীট দাখিল করেন। এহত্যা মামলায় চার্জশীটভুক্ত ২৮ জনের মধ্যে ২৬ জন সাক্ষ্য প্রদান শেষে সংশ্লিষ্ট আদালতের বিচারক এরায় ঘোষণা করেন। নিহতের ভাই সমিত মন্ডল বলেনন, রায়ে আমরা সন্তুষ্ট, তাদের উপযুক্ত শাস্তি হওয়ায় আমার বোনের আত্মা শান্তি পাবে । আমাদের দাবি এটি কার্যকর হোক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Must Read

সেরা ১০টি সুন্দর রিসোর্ট ঢাকার কাছে

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: ব্যস্ততার ভিড়ে একটু ছুটি মিললেই কোথায় ঘুরতে যাবেন তা নিয়ে পরিকল্পনার শেষ নেই। যানজট এড়িয়ে কম দূরত্বে যদি কোথাও...

খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়লো

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ আরও ৬ মাস বাড়ানো হয়েছে। তবে এসময় তিনি চিকিৎসার...

মামলা করতে আদালতে জেমস

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: বাংলালিংকের বিরুদ্ধে গান কপিরাইট আইনে ঢাকার নিম্ন আদালতে মামলা করেছেন মাহফুজ আনাম জেমস।রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ...

আফগানিস্তানে ভয়াবহ বোমা হামলা, নিহত ৭

দ্যা নিউজ বিডি,আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল ও পূর্বাঞ্চলীয় শহর জালালাবাদে পরপর কয়েকটি বিস্ফোরণে অন্তত সাত জন নিহত এবং নারী শিশুসহ অন্তত ৩০ জন...

ঘুষ গ্রহণের মামলায় ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল কারাগারে

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: ঘুষ গ্রহণ ও অর্থপাচার আইনে করা মামলায় বরখাস্ত সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি প্রিজনস) পার্থ গোপালের জামিন নামঞ্জুর করে...