Home টপ নিউজ রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সঙ্কটে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ খাত

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সঙ্কটে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ খাত

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের কারণে বাংলাদেশে যে খাতগুলোয় সবচেয়ে বেশি নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে তার মধ্যে অন্যতম বিদ্যুৎ খাত। যুদ্ধের বছরে টালমাটাল হয়ে পড়ে জ্বালানি তেল ও গ্যাসের আন্তর্জাতিক বাজার। রেকর্ড দাম বৃদ্ধির কারণে আমদানি করতে ব্যর্থ হয় বাংলাদেশ, ফলে বিদ্যুৎ উৎপাদনে সঙ্কট দেখা দেয়। ফলে উৎপাদন কমানো হয়, আবার জ্বালানির উচ্চমূল্যের কারণে তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয় রেকর্ড হারে। বলা হচ্ছে রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর বাংলাদেশে জ্বালানি খাতের ওপরেই সবচেয়ে বেশি বিরূপ প্রভাব পড়েছে। বাংলাদেশ যেহেতু প্রাথমিক জ্বালানির বেশিরভাগই আমদানি করে চলে, তাই জ্বালানি খাতে গভীর সঙ্কট সৃষ্টি করে রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধ। যুদ্ধের বছর জ্বালানি খাতে আমদানি করতে গিয়ে ডলার সঙ্কটেও পড়েছে বাংলাদশ। জ্বালানির আন্তর্জাতিক বাজার তদারকি ও গবেষণার সাথে যুক্ত একটি প্রতিষ্ঠানের হিসেবে দেখা যায়, আন্তর্জাতিক স্পট মার্কেটে ২০২১ সালের মার্চ মাসে যে এলএনজির দাম গড়ে ৭ ডলারে মধ্যে ছিল, তা ২০২২ সালে ৫৪ ডলার পর্যন্ত উঠে যায়। বাংলাদেশে সরকারে জ্বালানি উপদেষ্টা জানান সর্বোচ্চ ৩৫ ডলার দিয়ে গ্যাস কেনার পর বাংলাদেশ স্পট মার্কেট থেকে এলএনজি আমদানি বন্ধ করে দেয়।

বর্তমান জ্বালানি খাতের পরিস্থিতি মূল্যায়ন করে জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ড. ম তামিম বলেন, ডলার সঙ্কট ও দাম বৃদ্ধি এই উভয় সঙ্কটে পড়ে বাংলাদেশের জ্বালানি খাত এই মুহূর্তে খুবই নাজুক পরিস্থিতিতে আছে আমি বলবো। এটা গ্রীষ্মকালে কঠিন চ্যালেঞ্জ হবে। আমাদের উৎপাদন ক্ষমতা আছে, আমাদের বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো তৈরি হয়ে গেছে। বিশেষ করে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোতে প্রায় তিন হাজার মেগাওয়াটের মতো অতিরিক্ত বিদ্যুৎ আসছে। তার মানে আমাদের উৎপাদন ক্ষমতা আছে। আমাদের মূল চ্যালেঞ্জটা হলো জ্বালানি সংগ্রহ করা, প্রাথমিক জ্বালানি সংগ্রহ করা। সেখানে গ্যাস আমদানি করতে হবে এবং কয়লা আমদানিও করতে হবে। তো এটার টাকার সংস্থান করাটাই হলো সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।’একদিকে বিপুল পরিমান জ্বালানির আমদানির প্রয়োজনীয়তা, অন্যদিকে ডলার সঙ্কট এখন বাংলাদেশের অর্থনৈতিক বাস্তবতা। সেচ মৌসুম, গ্রীষ্মের গরম ও রমজান মাসে একসাথে এবার বিদ্যুতের চাহিদা তৈরি করবে। বিদ্যুৎ বিভাগের উৎপাদন পরিকল্পনা ও চাহিদা জোগানের এক হিসেবে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদনের সক্ষমতা আছে ২৪ হাজার ১১৪ মেগাওয়াট।এর মধ্যে গ্যাসভিত্তিক ১১ হাজার ১৯ মেগাওয়াট, কয়লাভিত্তিক ৩ হাজার ৫২ মেগাওয়াট, সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে ডিজেল চালিত এক হাজার ২০৬ মেগাওয়াট, ফার্নেস অয়েলে সরকারি এক হাজার ৩৩৮ মেগাওয়াট এবং বেসরকারি খাতে চার হাজার ৯০২ মেগাওয়াট। এছাড়া জলবিদ্যুৎ ২৩০ মেগাওয়াট, সৌর ৪৫৯ মেগাওয়াট ও আমদানি সক্ষমতা এক হাজার ৯০৮ মেগাওয়াট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Must Read

সবাইকে মাদকের বিরুদ্ধে সক্রিয় হতে হবে, প্রধানমন্ত্রী

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: মাদকের বিরুদ্ধে সবাইকে সক্রিয় হওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আমরা যেমন উন্নত হচ্ছি, ঠিক তার পাশাপাশি মাদকের প্রভাবও...

শিবচরে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে বাস খাদে, নিহত ১৭

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: পদ্মা সেতুর এক্সপ্রেসওয়ের মাদারীপুর জেলার শিবচরের কুতুবপুর এলাকায় ঢাকাগামী ইমাদ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে ১৭ জন যাত্রীর...

খুবই অস্বাস্থ্যকর’ বায়ু নিয়ে আজও দূষণের শীর্ষে ঢাকা

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহরের তালিকার র্শীষে অবস্থান করছে রাজধানী ঢাকা। আবহাওয়ার পরিবর্তনসহ মানবসৃষ্ট নানা কারণে দিন দিন যেন ঢাকায় নির্মল...

ইমরান খানকে গ্রেপ্তারে, লাহোরে তীব্র উত্তেজনা, সংঘর্ষ

দ্যা নিউজ বিডি,আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে পুলিশ তোষাখানা মামলায় গ্রেফতার করতে চাচ্ছে। তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকলেও এই একটি...

আজ পবিত্র শবে বরাত

দ্যা নিউজ বিডি অনলাইন ডেস্ক: আজ পবিত্র শবে বরাত । যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা রাতে মহান আল্লাহর রহমত কামনায় নফল ইবাদত-বন্দেগীর মধ্য দিয়ে...